সারা বিশ্বে বাংলাদেশে উৎপাদিত আলুর চাহিদা আছে: বাণিজ্যমন্ত্রী

0 min read

নিউজ ডেস্ক: প্রয়োজনের অতিরিক্ত ৩৫ লাখ মেট্রিক টন আলু রপ্তানির উদ্যোগের কথা জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেছেন, বিশ্বের অনেক দেশে বাংলাদেশে উৎপাদিত আলুর চাহিদা আছে। চাহিদার অতিরিক্ত উৎপাদিত আলু বিদেশে রপ্তানির ব্যবস্থা করা হবে।

রাজধানীর একটি হোটেলে শনিবার বাংলাদেশ কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশনের ৪৬তম বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আলু হিমাগারে সংরক্ষণ করা হলেও তার প্রকৃত মূল্য পাচ্ছেন না কৃষক। দেশে আলুর ব্যবহার সীমিত। ভাতের পরিবর্তে আলুর ব্যবহার বৃদ্ধি করা গেলে দেশ উপকৃত হতো।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বিক্রির অভাবে অনেক সময় আলু নষ্ট হয়ে যায়। এতে কৃষক ও হিমাগারমালিকও ক্ষতিগ্রস্ত হন। বিষয়গুলো মাথায় রেখে সরকার কাজ করে যাচ্ছে, যাতে বাংলাদেশের একটি মূল্যবান কৃষিপণ্যে পরিণত হয় আলু। তিনি আরও বলেন, বিশ্বের চাহিদার সঙ্গে মিল রেখে মানসম্পন্ন আলু উৎপাদন করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের জটিলতায় রাশিয়াসহ অন্যান্য দেশে আলু রপ্তানি করা যাচ্ছে না। বাংলাদেশে উৎপাদিত আলু বিশ্ববাজারে গ্রহণযোগ্য করে উৎপাদনের জন্য গবেষণা করা হবে। উৎপাদিত আলুর সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করা হবে। সরকার আলু উৎপাদন ও রপ্তানিতে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে যাচ্ছে। সংগত কারণে দিন দিন দেশে আলুর উৎপাদন বাড়ছে।

বাংলাদেশ কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রথম ভাগে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম সহসভাপতি কামরুল হোসেন চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির পরিচালক মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বক্তব্য দেন।

+ There are no comments

Add yours