দেবীগঞ্জে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

0 min read

নিউজ ডেস্ক: প্রতিবেশী দুই কিশোরের দ্বারা ৫ বছরের এক শিশু গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। ওই শিশুটিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় দেবীগঞ্জ উপজেলার পামুলী ইউনিয়নের হাকিমপুর জেন্দাপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।  গ্রাম সালিশের মাধ্যমে ঘটনাটিকে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টাও করা হচ্ছে বলে জানা যায়।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শিশুটির বাবা ঢাকায় রিক্সা চালান। বাড়িতে সংসার দেখাশুনা করেন শিশুটির মা।  রবিবার সন্ধ্যায় শিশুটির মা তাকে বাড়িতে রেখে পাশেই বাবার বাড়িতে যান। এ সময় প্রতিবেশি হোসেন আলীর ছেলে মিলন (১৩) ও মোমিনের ছেলে আকাশ (১০) বাড়িতে ঢুকে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে শিশুটি অজ্ঞান হয়ে পড়লে তারা পালিয়ে যায়। এর কিছুক্ষণ পর শিশুটির মা বাড়ি ফিরে শিশুটিকে অজ্ঞান অবস্থায় ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে। অনেকক্ষণ মাথায় পানি ঢালার পর জ্ঞান ফিরলে শিশুটি তার মাকে ঘটনা খুলে বলে। রাতে শিশুটি আরও অসুস্থ হয়ে পড়ে।  আজ সোমবার ভোরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। শিশুটির পরিবার ওই দুই কিশোরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. আবু সায়েম বলেন, রোগীর অভিভাবকরা দাবি করেছেন শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে। সে মোতাবেক আমরা শিশুটিকে ভর্তি করেছি। শিশুটির চিকিৎসা চলছে। প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের আলামত আমরা পেয়েছি। তবে তা পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

দেবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ রবিউল হাসান সরকার বলেন, বিষয়টি তদন্তের জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আরও পড়তে পারেন

+ There are no comments

Add yours