আবাসন ব্যবসায় বিদেশিরাও এগিয়ে আসছেন: গণপূর্ত মন্ত্রী

1 min read

নিউজ ডেস্ক: গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, ‘বাংলাদেশের আবাসন ব্যবসায় আমরা একটি বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনতে চাই। ঝিলমিল প্রকল্প, পূর্বাচল প্রকল্প, উত্তরা তৃতীয় ফেজ, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের বিভিন্ন হাউজিং প্রকল্প, উত্তরায় পরিকল্পনাধীন হাই রাইজ বিল্ডিং প্রকল্প… এসব ক্ষেত্রে বিদেশি বিনিয়োগকারীরাও এগিয়ে আসছেন। আমরা কাজ করতে চাই। আমরা বাংলাদেশকে সিঙ্গাপুর বানাতে চাই।’

মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) উত্তরার ১৮ নম্বর সেক্টরে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)-এর উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্প পরিদর্শনকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় মন্ত্রী আরও বলেন, ‘অদূর ভবিষ্যতে পূর্বাচল হবে স্যাটেলাইট সিটি, যে সিটি আমাদের প্রতিবেশী কোনও দেশ দেখেনি। উত্তরা তৃতীয় ফেজ হবে একটি আধুনিক নগর, যেটি দেখে মানুষ বিস্মিত হবে।’

সাংবিধানিক অধিকার নিশ্চিত করা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ম্যান্ডেট উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাই দেশের সব মানুষের সাংবিধানিক অধিকার নিশ্চিত করতে। এই ম্যান্ডেটে কারও কোনও গাফিলতি আশা করি না। কারও কোনও গাফিলতি দৃশ্যমান হলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে অবশ্যই দায় নিতে হবে।’

বাংলা‌দে‌শের একেবা‌রে প্রান্তসীমায় বসবাস করা মানুষের জন্য স্বল্পসম‌য়ের ম‌ধ্যে নিরাপদ, প‌রি‌বেশসম্মত বাসস্থান নি‌শ্চিত করা হ‌বে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘যারা ছিন্নমূল, তা‌দের জন্য প্রকল্প নেওয়া হ‌য়ে‌ছে, নির্মাণাধীন প্রকল্প র‌য়ে‌ছে এবং কোথাও কোথাও সম্পন্নও করা হ‌য়ে‌ছে। একজন লোকও ঢাকার রাস্তায়, শহরের রাস্তায় বা গ্রা‌মে কা‌রও বা‌ড়ির পা‌শে ঘু‌মি‌য়ে থাক‌বে না। তার জন্য আবাসন ব্যবস্থা থাক‌বে।’

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রীর উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্প পরিদর্শনের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার, রাজউকের চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রহমান, গণপূর্ত অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী মো. সাহাদাত হোসেন, ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান, ডেসকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শহীদ সারোয়ার প্রমুখ।

+ There are no comments

Add yours