ব্রেকিং: নয়াপল্টনে ককটেল ফাটিয়ে হাইকমান্ডের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ শুরু ছাত্রদলের

1 min read

নিউজ ডেস্ক : রদবদলের নামে বিএনপিতে চলছে স্বজনপ্রীতি আর মোটা অংকের টাকার লেনদেন। লন্ডনে পলাতক দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে যে যত টাকা পাঠাচ্ছে তাকেই দেওয়া হচ্ছে নতুন কমিটিতে পদবি। যোগ্যতা, সাংগঠনিক দক্ষতা, নেতৃত্বগুণের চেয়ে টাকাওয়ালাদের গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে বেশি।

এর আগে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় প্রায় তিন শতাধিত তৃণমূল নেতাকে বহিষ্কার করায় শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিদ্রোহের প্রস্তুতি আগে থেকেই চলছিল আর দল গোছানোর নামে রদবদলে যোগ্যতার অবমূল্যায়ন করায় সেই বিদ্রোহের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে ককটেল বিস্ফোরণের মধ্যদিয়ে।

গেল মঙ্গলবার (২৫ জুন) বিকেলে ছাত্রদলের ২৬০ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কেন্দ্রীয় কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে নয়াপল্টনে শুভেচ্ছা মিছিল করছিলেন নতুন পদধারীরা। ঠিক তখনই দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ৮-১০টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় ছাত্রদলের পদবঞ্চিত নেতারা।

পদবঞ্চিত নেতারা জানায়, ককটেল বিস্ফোরণের মাধ্যমে শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ শুরু করলো ছাত্রদলের অবমূল্যায়িত নেতারা। রদবদলের নামে কমিটি বাণিজ্য, টাকার কাছে যোগ্যতার অসহায় পরাজয় আর মেনে নেওয়া যায় না। দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে এখন প্রতিবাদ করা ছাড়া আর কোনো পথ খোলা নেই। আলোচনার মাধ্যমে যোগ্যদের মূল্যায়ন না করা হলে শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলনে নামবে পদবঞ্চিত নেতারা।

এই বিদ্রোহে বিএনপির অনেক কেন্দ্রীয় নেতারাও শরিক হয়েছেন বলে জানা গেছে। তারাও চায়, তারেক রহমানের একক কর্তৃত্ব থেকে মুক্ত হোক বিএনপি। আলোচনায় কাজ না হলে বিদ্রোহকে আন্দোলনে রূপ দেওয়ার পক্ষে বিএনপি নেতাদের বিরাট অংশ।

আরও পড়তে পারেন

+ There are no comments

Add yours