বিদেশে অ্যাসাইলাম সুবিধার নেপথ্যে রয়েছে অসৎ উদ্দেশ্য

0 min read

নিউজ ডেস্ক: দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশে বেশ কিছু বিতর্কিত ব্যক্তি বিদেশে অবস্থান করছেন। যাদের মধ্যে অনেকেই আবার পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন কন্টেন্ট ক্রিয়েটিং। তাদের মূল কন্টেন্ট দেশের রাজনীতিকে ঘোলাটে করতে সরকারকে নিয়ে মিথ্যা কন্টেন্ট বানানো। কোনো তথ্য উপাত্ত ছাড়াই কিছু টাকার লোভে বিভিন্ন প্রকল্প ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা করে তারা।

এসব ব্যক্তিদের মধ্যে দেখা যায়, তাসনিম খলিল, পিনাকী ভট্টচার্য্য, সাংবাদিক ইলিয়াস, কর্নেল শহিদ, মেজর দেলোয়ার, জুলকারনায়েন সায়ের সামি, আবদুর রব ভুট্টো, শামসুল আলমসহ আরও অনেক ব্যক্তি। যাদের অনেকের বিরুদ্ধেই রয়েছে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ, কেউ কেউ আবার দুর্নীতিতে অভিযুক্ত।

লন্ডন, সুইডেন, হাঙ্গেরিসহ ইউরোপের অনেক দেশেই পালিয়ে গিয়ে এসব ব্যক্তিরা অবস্থান করছেন। যাদের মধ্যে অনেকেই অ্যাসাইলাম বা রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন। মূলত দেশে থাকলে অনেক বড় শাস্তি কিংবা বিচারের মুখোমুখি হতে হবে এই আশঙ্কায় বিদেশে গিয়েছেন তারা।

যারা অ্যাসাইলামের আবেদন করে পশ্চিমা দেশগুলোতে আশ্রয় নিয়েছেন, তারা সবাই নিজেদেরকে ভিকটিম হিসেবে উপস্থাপন করেছেন। কিন্তু তারা কেউই ভিকটিম নন, বরং দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণকারী একেকজন অপরাধী। আর রাষ্ট্র, সার্বভৌমত্ব, সেনাবাহিনী ও সরকারকে নিয়ে বানিয়ে তথ্য প্রকাশ করে বিদেশে যাওয়ায় তাদের মূল উদ্দেশ্য ছিল। এ কারণেই এখনো তারা বিনা প্রমাণে কন্টেন্ট বানায়।

দেশের সচেতন মহলের দাবি, এসব মানুষগুলো যেকোনো রাষ্ট্রের জন্যই হুমকি স্বরূপ। যাদের মাতৃভূমির প্রতি দায়বদ্ধতা কিংবা শ্রদ্ধা নেই, তাদের কোনো দেশেই ঠাঁই দেয়া নিরাপদ নয়।

আরও পড়তে পারেন

+ There are no comments

Add yours