হুমকির মুখে বিএনপির চেইন অব কমান্ড

1 min read

নিউজ ডেস্ক : যতই দিন গড়াচ্ছে, নেতৃত্ব সংকটে দলের অভ্যন্তরে সমন্বয়হীনতা, কোন্দল এবং তৃণমূলে বিশৃঙ্খলার মতো সমস্যাগুলো বিএনপিতে ততই প্রকট হতে দেখা যাচ্ছে। চলমান উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে সম্প্রতি বিষয়গুলো আরও স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

জাতীয় নির্বাচনের পর উপজেলা নির্বাচনও বয়কট করেছে বিএনপি। কিন্তু কেন্দ্রের নির্দেশনা অগ্রাহ্য করে দলটির মাঠ পর্যায়ের শতাধিক নেতাকর্মী ইতোমধ্যেই নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন, যাদেরকে পরে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এর মধ্যে, গত আটই মে অনুষ্ঠিত প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় ৭৯ জন নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি।

বহিষ্কার করার আগে তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে, এমনকি সরাসরি কথা বলেও থামানোর চেষ্টা করেছে দলটি। যদিও কোনো প্রচেষ্টাতেই শেষ পর্যন্ত কাজ হয়নি।

উল্টো আগামী ২১ মে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে বিএনপি’র আরও অন্তত ৬১ নেতাকর্মী প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সপ্তাহখানেক আগে তাদেরকেও বহিষ্কার করা হয়েছে।

এদিকে, বহিষ্কারের কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার পরও ভোট করা থেকে মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের বিরত রাখতে না পারার বিষয়টি নিয়ে দলের মধ্যেই অস্বস্তি এবং উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে।

‘এটি মোটেও ভালো লক্ষণ নয়,’ গণমাধ্যমকে বলেন বিএনপির জেলা পর্যায়ের একজন জ্যেষ্ঠ নেতা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই নেতা আরও বলেন, ‘যাদেরকে বহিষ্কার করা হয়েছে, তারা ভোটে জিতলে শীর্ষ নেতাদের আর ধার ধারবে না। প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনে হয়েছেও তাই। দলের যে সব নেতারা জিতেছেন তারা এখন বিএনপির হাইকমান্ডকে নিয়ে তাচ্ছিল্য করছে। এভাবেই দলের চেইন অব কমান্ড হুমকির মুখে পড়ছে।’

আরও পড়তে পারেন

+ There are no comments

Add yours