নিজ দোষেই সাংগঠনিক শক্তি হারিয়ে নিঃশেষ হওয়ার পথে বিএনপি, শঙ্কিত বোদ্ধা মহল

1 min read

নিউজ ডেস্ক: রাজনীতিতে বিরোধীদল শক্তিশালী হলে গণতন্ত্র সুসংগঠিত হয় বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তার মতে, বিএনপি দুর্বল হোক, সেটা আওয়ামী লীগ চায় না। কিন্তু বিএনপি নেতিবাচক রাজনীতির জন্য দুর্বল হয়ে পড়লে ক্ষমতাসীন দলের কিছু করার থাকে না।

৯ ফেব্রুয়ারি ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এদিকে ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সঙ্গে সহমত প্রকাশ করে রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. মেজবাহ কামাল বলেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেয়ার আগেই হেরে যায়। তারা নালিশের রাজনীতি করছে। একটা রাজনৈতিক দল শুধুমাত্র নালিশ করে টিকে থাকতে পারে না। বিএনপির আজকের অধঃপতনের জন্য অতীতের অপকর্মগুলো দায়ী। নেতিবাচক রাজনীতিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করায় জনগণের সাড়া পাচ্ছে না বিএনপি। ভুলের পর ভুল করছে বিএনপি। হারের পরই কিন্তু জয়ের দেখা পাওয়া যায়, বিএনপির নেতারা এই প্রবাদ হয়তো বিশ্বাস করেন না। বিএনপির রাজনীতি ভুলের গোলক ধাঁধায় পথ হারিয়ে ফেলেছে।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, হ্যাঁ-এটি সত্য যে আমরা রাজনীতির কক্ষপথ থেকে খানিকটা ছিটকে পড়েছি। তবে এই বিপর্যয় চিরস্থায়ী নয়। আমরা ভুল শুধরে পরিচ্ছন্ন বিএনপিকে জনগণের সামনে হাজির করার জন্য প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করে যাচ্ছি। বিএনপিতে বিভক্তি ও বিদ্রোহীদের সমাগম স্পষ্ট হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

তিনি আরো বলেন, দল ভাঙ্গার চেষ্টা করছেন দলেরই অনেক নেতা। মনে রাখতে হবে, ম্যাডাম জিয়া ও তারেক রহমান ছাড়া বিএনপি অচল। সুতরাং তাদের মাইনাস করে বিএনপি দখলের চেষ্টা করলে কোনো লাভ হবে না। বিএনপি শিগগিরই বেইমান ও সুবিধাবাদী নেতাদের বাদ দিয়ে শক্তি-সামর্থ্য নিয়ে রাজনীতিতে ফিরে আসবে। বিএনপির এবারের প্রত্যাবর্তন হবে ঐতিহাসিক।

আরও পড়তে পারেন

+ There are no comments

Add yours